“ঢাকা টু চট্টগ্রাম” ভ্রমণ কাহিনী

সিলেট বিডি নিউজ.নেট
প্রকাশিত ১, ডিসেম্বর, ২০২০, মঙ্গলবার
“ঢাকা টু চট্টগ্রাম” ভ্রমণ কাহিনী

সিলেট বিডি নিউজ: গতকাল চট্টগ্রাম ফেরার পথে ঢাকা নরসিংসী থেকে চট্টগ্রামের ট্রেন মিস করে অনেকটা বিচলিত হয়ে পড়ি, তড়িঘড়ি করে লোকাল কর্ণফুলী ট্রেনে করে ঢাকা কমলাপুর রেল স্টেশনের ছুটলাম, এক/দেড় ঘন্টার পথ কিন্তু মাঝপথে তেজগাঁও ক্রসিংয়ে ৪ ঘন্টা চলেগেল, কমলাপুর পৌঁছালাম রাত ৯.৫০ মিনিটে, খুবই বিরক্তকর একটি অভিজ্ঞতা হলো, ততক্ষণে ট্রেনের সকল সিট বুকিং, তুর্ণা নিশিতায়ও কোন সিট না-পেয়ে হতাশার ১৬ কলা পূর্ণ হলো.!!

মন খারাপ করে টিকিট কাউন্টার থেকে ফেরার সময় হঠাৎ একজন পিছন থেকে ডেকে বললেন, ভাইয়া কি চট্টগ্রাম যাবেন, আমি বললাম হ্যাঁ, ছেলেটি বললো, আমরা বন্ধু-বান্ধবীরা মিলে ১৬ জনের ১টি টিম বান্দরবান ট্যুরে যাচ্ছি, ১৬ জনের জন্য অগ্রিম সিট নেয়া ছিল, কিন্তু সমস্যার কারনে ১জন অনুপস্থিত.!! তিনি আমাকে সেই সিটে চট্টগ্রাম যাওয়ার প্রস্তাব করলেন, আমি সুযোগটা লুফে নিলাম।
তাকে টাকা দিতে চাইলাম কিন্তু তিনি ট্রেনে উঠার পর টাকা দিতে বললেন, ভদ্র লোকের নাম জানতে চাইলে বললেন তার নাম তামিম ইসলাম

রাত ১১.১০মিনিটে ট্রেনে উঠলাম
ভদ্রলোক যথাযথ সম্মানের সহিত সিটে বসালেন, ১১.৩০ মিনিটে ট্রেন ছাড়লো, আমার পাশের সিটে বসা সৈয়দ আফ্রিদি নামে ট্যুর সদস্যের সাথে কিছুক্ষণ আলাপের পর জানতে পারলাম তারা বিভিন্ন জেলা থেকে ফেইসবুক “ট্রেবল গ্রুপের” মাধ্যমে বান্দরবান, মেঘের রাজ্য মারায়ংতং ক্যাম্পিং করতে যাচ্ছেন।

“ভ্রমনের গল্প” নামক গ্রুপে এড হয়ে তারা কমলাপুর থেকে রওনা হয়েছেন, আর তামিম হচ্ছেন “ভ্রমনের গল্প” নামক গ্রুপের এডমিন।

১/২ ঘন্টার মধ্যেই আলোচনা জমে উঠলো, সারারাত
সকলের সাথে গল্পগুজবে অসাধারণ একটা সময় কাটলো, রাত ১.৩০ মিনিটে বি-বাড়িয় স্টেশন থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে কাজী মাহবুব ভাই স্ব-পরিবারে ঞ-৪৩,৪৪ বগিতে উঠলো, কাকতালীয় এক সাক্ষাত, ভাইয়ের উপস্থিতিতে আনন্দ আরো শতগুন বেড়েগেল।
ট্রেন চলছে.. রাতটা যেন নিমিষেই ভোর হয়েগেল, চট্টগ্রাম রেলওয়ে ষ্টেশন পৌঁছানোর পরই পথ ভিন্ন.!!
সকলকে বিদায় দিয়ে বায়েজিদের উদ্দেশ্যে সিএনজি-তে উঠতেই, হঠাৎ মন খারাপ হয়েগেল, খুবই কষ্ট হচ্ছিল, মনে হচ্ছিল সাথের প্রতিটা মানুষই যেন হাজার বছরের পরিচিত.!!

 838 total views

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
error: Content is protected !!