হবিগঞ্জ থেকে প্রথম ক্রস কান্ট্রি ট্যুর 

সিলেট বিডি নিউজ.নেট
প্রকাশিত ২৮, নভেম্বর, ২০২১, রবিবার

নাজমুল ইসলাম হৃদয়ঃ  মানুষ শখের জীব। শখ করতে ভালোবাসে। শখ পূরণের চেষ্টায় কোনো ত্রম্নটি থাকতে নেই। তাই তো এক ব্যতিক্রমী শখ মোটরবাইক চালিয়ে ক্রস কান্ট্রি ট্যুর  তামাবিল 0 পয়েন্ট থেকে যাত্রা শুরু করে সাতক্ষীরা ভোমরা-টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া ০ কিঃমি সীমান্ত পর্যন্ত প্রায় ২৫৭৫ কিঃমিঃ দীর্ঘ পথ মোটর বাইকে করে  চড়ে বেড়িয়েছেন হবিগঞ্জ থেকে প্রথম শাহরিয়ার কবির শুভ ও শুভ্রত বণিক শুভ্র।

 
শাহরিয়ার কবির শুভ বলেন,  চারদিনে হবিগঞ্জ থেকে প্রথম আমি আর আমার বন্ধু শুভ্রত বণিক শুভ্র ক্রস কান্ট্রি ট্যুর  তামাবিল 0 পয়েন্ট থেকে যাত্রা শুরু করে সাতক্ষীরা ভোমরা-টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া ০ কিঃমি সীমান্ত পর্যন্ত প্রায় ২৫৭৫ কিঃমিঃ দীর্ঘ পথ বাইকে করে পাড়ি দিয়েছি,আল্লাহর রহমতে ছোট-বড় কোনো ধরণের বিপদের সম্মুখীন হয়নি।হাজার মাইল পথ পাড়ি দিয়ে হয়েছে অনেক অভিজ্ঞতা, হয়েছে অনেক ভাইদের সাথে সম্পর্ক।চলার পথে যারা আমাকে সময় দিয়েছেন,তাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ ও ধন্যবাদ। এইটা আমার স্বপ্ন ছিলো। ইনশাআল্লাহ বাইকে করে বিশ্ব ভ্রমণের স্বপ্ন দেখি ইনশাআল্লাহ একদিন পূরণ হবে। অবশ্যই হ্যালমেট ব্যবহার করে বাইক চালাবেন, টান্ডা মাথার এবং সম্পূর্ণ সুস্থ মানুষ ছাড়া এমন ভ্রমণ করার সাহস করবেন না। অবশ্যই ভালো বাইকার না হলে এতো পথ পাড়ি দেয়ার সাহস করবেন না। আরও অনেক অভিজ্ঞতা আপনাদের সাথে শেয়ার করবো ইনশাআল্লাহ।
রাইটার  শুভ্রত বণিক শুভ্র বলেন,   বাইক  চালিয়ে ভ্রমণের বিশেষত্ব অনেক। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হলো, শরীর-মন সতেজ থাকে। প্রকৃতিকে খুব কাছে থেকে দেখা যায়, অনুভব করা যায়। বিভিন্ন জেলায় বা এলাকায় ভ্রমণের মাধ্যমে অনেক ধরনের মানুষের সঙ্গে মেশার সুযোগ হয়। সেই এলাকা সম্পর্কে বিস্তর জানার সুযোগ হয়। সঙ্গে জানা হয় নানা অজানা সংস্কৃতি। নতুন যারা আঁকাবাঁকা পাহাড়ি এই পথে রাইডে আসতে চায় তাদের উদ্দেশ্যে এই তরুণ বলেন, ‘দক্ষ চালক হওয়ার পাশাপাশি লম্বা রাস্তা পাড়ি দেওয়ার জন্য মনোবলটা থাকতে হবে।

 480 total views

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 134
    Shares
error: Content is protected !!